সারাবছর চুল ও ত্বকের প্রতি সেভাবে খেয়াল না রাখলেও পুজোর আগে হঠাৎ করে টনক নড়ে রুপচর্চার প্রতি। কারণ উৎসবে-অনুষ্ঠানে আমরা প্রত্যেকেই চাই নিজেকে সবচেয়ে সুন্দর দেখাতে। তাই পার্লারে যাওয়া, এক্সারসাইজ ও সুষম আহার, ইত্যাদির প্রতি হঠাৎই ঝোঁক বেড়ে যায়। তবে ত্বকের যত্নে আপনি ঘরে থেকেই বিভিন্ন পদ্ধতি অবলম্বন করতে পারেন। উজ্জ্বল ও কোমল ত্বক পেতে বিভিন্ন ধরনের ফেসপ্যাক আপনি বাড়িতেই বানিয়ে ব্যবহার করতে পারেন। তাহলে দেখে নিন, পুজোর আগে নিজের সৌন্দর্য ফুটিয়ে তুলতে কী কী ফেসপ্যাক ব্যবহার করবেন –

১) হলুদ, মধু ও দুধের ফেস প্যাক

ত্বককে হাইড্রেট রাখতে মধুর বিকল্প হয় না, আর হলুদে থাকা অ্যান্টিসেপটিক এবং অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল উপাদান ব্রণ, পিম্পলসহ ত্বকের নানান সমস্যা দূর করে। দুধ আমাদের ত্বককে কোমল রাখে।

ক) হাফ চামচ গুঁড়ো হলুদ, এক চামচ মধু এবং পরিমাণমতো কাঁচা দুধ ভালভাবে মিশিয়ে ফেসপ্যাক তৈরি করুন।

খ) প্রথমে ক্লিনজার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে এই প্যাকটি ভালভাবে গোটা মুখে লাগিয়ে নিন। শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা জলে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

২) বেসন ও টক দই-এর ফেস প্যাক

এই প্যাক তৈলাক্ত ত্বকের জন্য অত্যন্ত কার্যকরী। বেসন ত্বকের বাড়তি তেল শুষে নেয় এবং দই ভিতর থেকে ত্বককে পরিষ্কার করে।

ক) ২ টেবিল চামচ বেসন এবং ১ টেবিল চামচ দই ভালভাবে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন।

খ) এরপর ফেস প্যাকটি মুখে লাগিয়ে নিন।

গ) শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা জলে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

৩) টক দই, হলুদ এবং টমেটোর ফেস প্যাক

ত্বকের সানবার্ন দূর করতে এবং ত্বকের উজ্জ্বলতা ফেরাতে এই ফেসপ্যাক ভীষণ কার্যকরী।

ক) একটি পাত্রে হাফ টেবিল চামচ গুঁড়ো হলুদ, ১ টেবিল চামচ টক দই এবং ১ টেবিল চামচ টমেটো পিউরি নিয়ে ভালভাবে মিশিয়ে একটি ঘন পেস্ট বানান।

খ) এরপর এটি আপনার ত্বকে ভালভাবে লাগিয়ে ১৫ মিনিট পর মুখ ধুয়ে ফেলুন।

৪) গোলাপ জল ও চন্দন পাউডারের ফেসপ্যাক চন্দন অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল গুণ সমৃদ্ধ। এটি ত্বকের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করে ত্বককে সুন্দর রাখতে অত্যন্ত কার্যকরী।আর, গোলাপ জলও ত্বকের জন্য খুব উপকারি। ক) ২ টেবিল চামচ চন্দন পাউডার এবং পরিমাণমতো গোলাপ জল নিন। খ) এই দুটো উপাদান ভাল করে মিশিয়ে মুখে লাগান। গ) শুকিয়ে গেলে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

৫) মুলতানি মাটি ও গোলাপ জলের ফেসপ্যাক এই প্যাক তৈলাক্ত ত্বকের জন্য খুবই কার্যকরী। মুলতানি মাটি ও গোলাপ জল ত্বকের জন্য অত্যন্ত উপকারি। ক) মুলতানি মাটি ও গোলাপ জল একসঙ্গে ভালভাবে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। খ) এই প্যাকটি মুখে লাগিয়ে শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। উপকার পাবেন।