ধরুন, খুব সুন্দরভাবে মেকআপ করেছেন আর সেই সাথে ড্রেসটাও খুব সুন্দর পরেছেন। কিন্তু বাসা থেকে বের হওয়ার পর দেখলেন হাত কেমন উষ্কখুষ্ক দেখাছে কিংবা সাদা সাদা হয়ে আছে! কেমন লাগবে বলুন তো? ত্বকের শুষ্কতা নিয়ে প্রায়ই বিপাকে পড়তে হয় আমাদের আর এই সমস্যার সমাধানে ময়েশ্চারাইজারের কোনো বিকল্প নেই। তাই ত্বককে উজ্জ্বল ও ময়েশ্চারাইজড রাখতে এজন্য খুঁজি ভালো মানের একটি ময়েশ্চারাইজার

আমরা যেহেতু শুষ্ক ত্বকে সারাবছর জুড়েই লোশন ব্যবহার করি, তাই বাজেটেরও একটি ব্যাপার থাকে সেখানে। আমার নিজের যেহেতু ড্রাই স্কিন, তাই আমিও ভালো মানের একটি বাজেট ফ্রেন্ডলি বডি লোশন খুঁজছিলাম। এরপর অনলাইনে জানতে পারি, রাজকন্যার ব্রাইটেনিং বডি লোশন (সুপার ময়েশ্চার) সম্পর্কে। এই বডি লোশনটি আমি কিছুদিন ধরে ব্যবহার করছি। আরআজকে আমি কথা বলবো, এই বডি লোশনটির কাজ এবং লোশনটিতে থাকা ইনগ্রেডিয়েন্ট এর উপকারিতা নিয়ে। পাশাপাশি জেনে নিব, বডি লোশন ত্বকের শুষ্কতা এড়াতে পারফেক্ট বডি লোশন কতটা কার্যকরী ছিল তা নিয়ে। চলুন তাহলে দেরী না করে জেনে নেয়া যাক, আমার এক্সপেরিয়েন্স।

কী কী আছে এতে?

রাজকন্যা ব্রাইটেনিং বডি লোশন (সুপার ময়েশ্চারাইজার) এ আছে ত্বকের জন্য উপকারী সব উপাদান। লোশনটিতে আছে এলমন্ড মিল্ক, আরগান অয়েল এবং সোডিয়াম হায়ালুরনেট। এলমন্ড মিল্ক আমাদের ত্বকের জন্য কতটা কার্যকরী তা আমরা সবাই জানি। এলমন্ড মিল্ক ত্বককে ভেতর থেকে ময়েশ্চার করে এবং ত্বককে রাখে হাইড্রেটেড। এতে থাকা আরগান অয়েল ন্যাচারাল ময়েশ্চারাইজার হিসেবে সুপরিচিত। আরগান অয়েলে আছে অ্যান্টি এজিং প্রপারটিজ, যা ত্বকের ফাইনলাইনস এবং রিংকেল এড়াতে কার্যকরী। এই ময়েশ্চারাইজারটি ত্বককে হাইড্রেটেড রাখার পাশাপাশি ত্বককে করবে উজ্জ্বল।

বডি লোশনটির কার্যকারিতা

১।এটি ত্বকের সাথে খুব সুন্দর ভাবে মিশে যায় এবং ত্বককে ৪৮ ঘণ্টা পর্যন্ত ময়েশ্চারাইজড রাখতে পারে।

২। এই ময়েশ্চারাইজারটি ত্বককে হাইড্রেটেড রাখার পাশাপাশি ত্বককে করে উজ্জ্বল।

৩। ময়েশ্চারাইজারটি ব্যবহারে ত্বকের ড্রাইনেস বা শুষ্কতা কমে যায়।

৪। এই ময়েশ্চারাইজার ব্যবহারে ত্বক থাকে সফট।

৫। ময়েশ্চারাইজারটিতে থাকা এলমন্ড মিল্ক ত্বকের লাবণ্য ধরে রাখতে উপযোগী।

৬। ময়েশ্চারাইজারটির আরেকটি উপাদান হচ্ছে- আরগান অয়েল, যা ত্বকে অ্যান্টি এজিং এর কাজ করে।

কারা ব্যবহার করতে পারবে?

এই ময়েশ্চারাইজারটি সকল ধরনের ত্বকের জন্য উপযোগী, তবে যাদের ড্রাই স্কিন তাদের জন্য এটি বিশেষ উপযোগী। আমাদের যাদের ত্বক ডিহাইড্রেটেড এবং রাফ হয়ে যায় তাদের জন্য এটি খুবই উপকারী। অনেক সময় আমাদের হাতের ত্বক অনেক বেশি শুষ্ক হয়ে যায়। বিশেষ করে, আমাদের মায়েদের হাত। ক্ষারযুক্ত সাবান, ডিটারজেন্ট আর পানির কাজের ফলে ত্বক তার স্বাভাবিক ময়েশ্চার হারিয়ে ফেলে। তাই এর সমাধান হতে পারে হাইড্রেটেড একটি ময়েশ্চারাইজার।

কখন ব্যবহার করবেন?

আপনি দিনে যেকোন সময় এই লোশনটি ব্যবহার করতে পারবেন। বিশেষ করে, গোসলের পরপরই ময়েশ্চারাইজারটি বডিতে এপ্লাই করলে তা ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখবে এবং ত্বকের শুষ্ক হয়ে যাওয়া রোধ করবে। আর রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে ময়েশ্চারাইজারটি এপ্লাই করলে সকালে পাবেন সফট এবং গ্লোয়িং স্কিন

প্যাকেজিং

প্রথমেই এর  প্যাকেজিং এর ব্যাপারে বলা যাক। প্রোডাক্টটি শুভ্র সাদা রঙের ফ্লোরাল প্রিন্টেড একটি বোতলে পাবেন। আর ব্যবহারের জন্য আছে পাম্প, যা দিয়ে সহজেই এপ্লাই করতে পারবেন লোশনটি।

পরিমাণ

রাজকন্যা ব্রাইটেনিং বডি লোশন (সুপার ময়েশ্চার) এর নেট ওয়েট ৩৮০ মি.লি.। যা আপনি অনায়েসেই ১/২ মাস ব্যবহার করতে পারবেন। আর আপনি যদি পরিবারের সবার জন্য একটি বডি লোশন খুঁজে থাকেন, তবে এটি আপনার জন্য পারফেক্ট একটি চয়েজ।

স্মেল কিংবা টেক্সশ্চার নিয়ে ভাবছেন?

আমরা অনেকেই লোশন কেনার আগে এর স্মেল বা টেক্সচারের ওপর জোর দেই। কেননা সব ধরনের স্মেল কিংবা টেক্সশ্চার আমাদের পছন্দ না। আমিও কেনার আগে এই বিষয়টি নিয়েই ভাবছিলাম। এই বডি লোশনটির স্মেল খুবই রিফ্রেশিং এবং এর টেক্সশ্চারও খুবই লাইট ওয়েট। বডিতে এপ্লাই করার সাথে সাথেই ত্বকে মিশে যায় এবং কোনো রকম চিটচিট করেনা। সাদা রঙের রিফ্রেশিং সুবাসের এই প্রোডাক্টটি নিয়ে তাই আমি খুবই খুশি।

দাম

রাজকন্যা ব্রাইটেনিং বডি লোশন (সুপার ময়েশ্চার) এর দাম ৪৯০ মাত্র টাকা। পুরো বডিতে ব্যবহারের জন্য বাজেট ফ্রেন্ডলি ময়েশ্চারাইজার হিসেবে এটি খুবই ভালো। আর আমার কাছে এর কার্যকারিতা অনুযায়ী দাম বেশ রিজেনেবল মনে হয়েছে।

আর কিছু কথা না বললেই নয়। রাজকন্যা আমার খুবই পছন্দের একটি ব্যান্ড। যখন দেখলাম রাজকন্যার বডি লোশন এসেছে, দেরী না করে কিনে ফেললাম। আর  এই ময়েশ্চারাইজারটি আমার সব এক্সপেক্টেশনকে ফুলফিল করেছে।

The post ত্বককে উজ্জ্বল ও ময়েশ্চারাইজড রাখতে বডি লোশন খুঁজছেন? appeared first on Shajgoj.